Author: Quiz Bangla

মুখস্ত করার সহজ কৌশল

“পড়তে ভাল্লাগে না”, “পড়ার টেবিলে মন বসে না”, “পড়া মনে থাকে না”। পড়া মনে না থাকা নিয়ে এমন হাজারো সমস্যা বা হতাশার কথা মানুষের মুখে মুখে ঘুরে। আসলে লেখাপড়া কাজটা কোন হতাশার বিষয় নয়। নিয়ম মাফিক পড়ালেখা করলে, সহজ কিছু টিপস্ মেনে চললেই হতাশাজনক এই বিষয়টিই আগ্রহের কেন্দ্র বিন্দুতে পরিনত হতে পারে। * পড়তে বসার আগে একটু হাঁটা-হাঁটি করতে হবে। খালি হাতে হালকা ব্যায়ামও করা যেতে পারে। এতে মস্তিষ্কের রক্ত চলাচল বৃদ্ধি পায়। ফলে মস্তিষ্কের কর্ম দক্ষতা ও ধারণ ক্ষমতা বৃদ্ধি পায়। এটি একটি পরীক্ষিত বিষয়। * পড়তে বসার পূর্বে প্রত্যেকের একটা টার্গেট ঠিক করে নিতে হয়। যেমন- কী পড়বেন? কোথা থেকে শুরু করবেন? কতটুকু পড়বেন, কয়টি বই পড়বেন? এটা কিন্তু খুব জরুরী। * অনেকের ধারনা পড়ালেখা সারা দিন-রাতের ব্যাপার। সারা দিন রাত পড়া লেখা করলে তবেই ভাল ফল পাওয়া যায়। কথাটি পুরোপুরি সত্য নয়। কারণ আগ্রহের সাথে পড়ালেখার একটা গভীর সম্পর্ক আছে। আর এই আগ্রহ সারা দিন রাত সময় সমান ভাবে থাকে না। সাধারণত আগ্রহটা শিক্ষার্থীদের সকালের দিকে বেশি থাকে। গবেষনায় দেখা গেছে- যে পড়াটা সকালের আধা ঘন্টায় হয়ে যাচ্ছে, তা রাতে করতে এক ঘন্টা বা তার বেশি সময় লাগছে। অবশ্য এই আগ্রহ ব্যক্তি বিশেষের ক্ষেত্রে বিভিন্ন হয়। তাই নিজেরটা নিজেকে বুঝতে হবে। যখন আগ্রহ বেশি থাকবে তখন কঠিন এক ঘেয়ে বিষয় গুলো পড়তে হবে এং আকর্ষনীয় বিষয় গুলো অন্য সময় পড়তে হবে। * একটানা পড়ালেখা করা অনেক সময় একঘেঁয়েমির কারণ হয়ে দাঁড়ায়। তখন অনেক সহজ বিষয়ও মাথায়...

Read More

বিদেশী ভাষা শেখার সহজ কৌশল

জীবন জীবিকার প্রয়োজনে, জ্ঞানার্জনের জন্য, উচ্চ শিক্ষা লাভের জন্য, প্রশিক্ষণের জন্য, বিনোদনের জন্য, অবসর কাটানোর জন্য, হাওয়া বদলের জন্য, ধর্মীয় কাজের জন্য, চিকিৎসা সেবা নিতে এমনি আরো অনেক কাজে প্রতিনিয়ত মানুষ এক দেশ থেকে অন্য দেশে যাচ্ছে । [ বিদেশী ভাষা শেখার সহজ কৌশল ] পৃথিবীতে মোট দেশ ২০৫টি, স্বাধীন ১৯৬টি, জাতিসংঘ স্বীকৃত ১৯৩ টি। প্রায় ৭০০ কোটি লোক এবং প্রায় ৭,০০০ বা তারও বেশি ভাষা প্রচলিত আছে। সব ভাষার কাজ কিন্তু একই। ভাষা হল তথ্য বিনিময়ের মাধ্যম। ভিন্ন ভিন্ন ভাবে প্রত্যেক ভাষাতেই এটি ঘটে। কারণ প্রত্যেক ভাষার নিজস্ব কিছু না কিছু নিয়ম কানুন রয়েছে। কথা বলার ধরণও আলাদা।  ...

Read More

সৃজনশীল উত্তর (নোট) তৈরির কৌশল

একজন পরীক্ষক শিক্ষার্থীর ধরন বিবেচনা করবেন না। তিনি দেখবেন একজন পরীক্ষার্থী পরীক্ষার খাতায় কেমন উপস্থাপন করে। পরীক্ষার খাতা মূল্যায়নে পরীক্ষকরা যে বিষয় গুলো গুরুত্ব দেন তা হল- খাতার সৌন্দর্য, বানানের প্রতি গুরুত্ব, নিয়মানুসারে বাক্য গঠন, নির্ভেজাল তথ্য উপস্থাপন, অপ্রয়োজনীয় শব্দ বা ভাষা পরিহার, কটা কাটি না করা, অপ্রসঙ্গীক বিষয় উপস্থাপন না করা, প্রশ্নোত্তরের ধারাবাহিকতা থাকা, প্রয়োজনীয় মার্জিন থাকা, উদ্দীপক ও পাঠ্য বইয়ের মিল বন্ধন, গঠনমূলক ব্যাখ্যা বা বিশ্লেষণ। সৃজনশীল পদ্ধতিতে পরীক্ষায় ভাল ফলাফল অর্জনের জন্য শিক্ষার্থীদের এই পদ্ধতিতে উত্তর উপস্থাপনের কৌশল বা নিয়ম গুলো সম্পর্কে জানতে হবে। এখন আমরা সৃজনশীল প্রশ্নের উত্তর [ সৃজনশীল উত্তর ] লেখার কৌশল গুলো জানব।...

Read More

সঠিক পদ্ধতি করো জারী, ক্লাস নোটটি করো কার্যকরী

প্রতিটি ক্লাসের লক্ষ্য হওয়া উচিত পাঠ বা লেসন গুলোর লিখিত বিবরণী সংরক্ষণ করা। প্রতিটি ক্লাসের পাঠ ক্লাস চলাকালীন সময়েই অর্ধেক সম্পূর্ণ করা সম্ভব কেবলমাত্র কার্যকরী ও বিস্তারিত নোট সংরক্ষণের মাধ্যমে। ক্লাস নোট পরবর্তীতে পরীক্ষা পূর্বরাতের প্রস্তুতি ও পাঠ প্রস্তুতির সর্বোচ্চ সহায়ক হিসেবে ভূমিকা পালনে সক্ষম। জটিল পাঠ্য যা দীর্ঘ সময়ের ব্যপ্তিতে জটিলতর রূপ ধারণ করে তার সহজ সমাধান ক্লাস নোট।   কার্যকরী ক্লাস নোট এর জন্য আবশ্য করণীয় কিছু পদক্ষেপ নিয়ে নিম্নে বিস্তারিত আলোচনা করা হল   ১। ক্লাস চলাকালীন পাঠ্য নোট সংগ্রহ করাঃ ক্লাস চলাকালীন সময়ে পাঠ্য বস্তু বা লেসন এর বিস্তারিত নোট সংগ্রহ করা যতটুকু সম্ভব। ক্লাসে...

Read More

পড়াশোনায় সম্ভার ও উন্নতি; আনবে সময়ের সঠিক ভাগাভাগি

।। সময়ের একফোঁড়, অসময়ের দশফোঁড় ।। ছোট্ট এই কথাটি ই সময়ের সদ্ব্যবহারের প্রয়োজনীয়তা মনে করিয়ে দেয়ার জন্য যথেষ্ট । সময়ের সুষম বন্টন ও সঠিক ব্যবহার ই নিশ্চিত করতে পারে সাফল্য । কাঙ্খিত লক্ষ্যে পৌঁছানোর জন্য সময়ের উপযুক্ত ব্যবহারের কোন বিকল্প নাই । বিশেষ করে ছাত্রজীবনের প্রতিটি মূহুর্ত কাজে লাগানোর মাধ্যমে যে কেউ সাফল্যের দরজায় কড়া নাড়তে পারে । কিন্তু দুর্ভাগ্যজনকভাবে সত্যি যে, ছাত্রজীবনে সময়জ্ঞানের অভাবে অথবা সময়ের সাথে তাল রাখতে না পেরে জীবন দৌড়ে অনেকে পিছিয়ে থাকে অথচ সময়ের কাজ সময়ে করার মাধ্যমে একজন ছাত্র অনায়াসেই বিজিতের স্থানটি নিশ্চিত করতে পারে। অনেক ছাত্র ই আছে যারা দৈনন্দিন ছাত্রসুলভ কাজে...

Read More