আমরা সবাই সফল হতে চাই। নিজের যোগ্যতা দিয়ে প্রতিষ্ঠিত হতে চাই নিজ নিজ ক্ষেত্রে। জীবনে সফল হতে হলে কিছু জিনিস সবার থেকে একটু আলাদা ভাবে ভাবতে প্রয়োজন হয়। যা আমরা সাধারনত মানুষের গুনাবলি বলে থাকি। এই গুণাবলি যাদের মধ্যে বিদ্যমান তারা তো সফলতার বিশুদ্ধ জল সিক্ত হবেনই। নিজেকে সর্বোচ্চ সফলতার দ্বারপ্রান্তে নেয়ার জন্য কিছু টিপস নিচে দেয়া হল-

. নিজেকে জানুন

সফলতা অর্জন করার জন্য নিজেকে জানাটা সবচেয়ে জরুরি। শুধু তাই নয়, এটা সফল একজন মানুষ হবার প্রথম ধাপও বটে। সবার আগে নিজেকে জানতে হবে, নিজেকে খুব ভালো মতো বুঝতে হবে। নিজের দুর্বলতা  ও ধারণ ক্ষমতা সম্পর্কে খুব পরিষ্কার ধারণা রাখতে হবে। এরপরে তার উপরে ভিত্তি করেই নিজের জীবনের লক্ষ্য এবং উদ্দেশ্য নির্ধারণ করতে হবে।

. সর্বদা অন্যের সেবায় সচেষ্ট থাকার চেষ্টা করতে হবে 

সেবার মাধ্যমেই সফলতার দ্বার উন্মুক্ত হয়। অন্যের কল্যাণে অর্থ, মেধা, শ্রম ও সময়কে সেবায় রূপান্তরিত করার চেষ্টা চালিয়ে যেতে হবে। শুধু কায়িক শ্রম নয়, নতুন চিন্তা ও কৌশল উদ্ভাবন করে কোনো কিছুকে আরো সহজ ও স্বচ্ছন্দ করাও এক ধরণের সেবা।

আপনি যা পেতে চান, তা-ই আগে আপনাকে দিতে হবে। অর্থ চাইলে অর্থ দান করতে হবে সবার আগে। সম্মান পেতে হলে অন্যকেও সম্মান করতে হবে। হাসিমুখ দেখতে চাইলে আগে অন্যকে হাসতে হবে। যা দান করবেন প্রাকৃতিক নিয়মেই তা হাজার গুণে আবার ফিরে আসবে আপনার কাছে। দানের এই প্রতিদান সার্বজনীন, ধর্ম বর্ণ গোত্র নির্বিশেষে সবার জন্যে সমান। আন্তরিক সেবা প্রাকৃতিক নিয়মেই সবার জন্য আনে সাফল্য।

. নিজের মানসিক শক্তি বাড়ান এবং অন্যদেরও মানসিকভাবে দৃঢ় হতে  উৎসাহিত করুন

সফলতার পথে এগিয়ে যেতে গিয়ে একটা পর্যায়ে হয়তো মানসিক শক্তি হারিয়ে ফেলবেন। একসময়ে মনে হবে আপনি পারবেন না। কিন্তু এরকম পরিস্থিতিতে নিজের মানসিক শক্তি যোগানোর চেষ্টা করুন সবার আগে। আপনার আশে পাশের মানুষগুলোকেও মানসিক ভাবে উৎসাহিত করুন, যাতে তারা কোনো কিছুতেই খুব সহজে ভেঙ্গে না পড়ে।

. নিজের যত্ন নিন

জীবনের বিভিন্ন ক্ষেত্রে আমরা ব্যর্থতাসহ নানা সমস্যার মুখোমুখি হই। এ রকম পরিস্থিতিতে আমাদের উচিত নিজেদের প্রতি আরও বেশি যত্নবান হওয়া এবং নিজেকে বেশি বেশি ভালোবাসা। এমনকি পৃথিবীর ৭শ’ কোটি লোক আপনাকে ঘৃণা করলেও আপনার অবশ্যই উচিত নিজেকে ভালোবাসা। একটি কথা মনে রেখে এগোবেন সবসময়, নিজেকে যত বেশি ভালোবাসবেন, আপনি তত বেশি সুখী ও সফল ব্যক্তিত্বে পরিণত হবেন। তেমনিভাবে নিজেকে মানসিক ও শারীরিকভাবে সুন্দর আবস্থায় রাখার চেষ্টা চালিয়ে যেতে হবে। নতুবা রাগ, ক্রোধ ও দুশ্চিন্তার মত নেতিবাচক আবেগগুলো আগুনের ন্যায় ছড়িয়ে পড়ে অল্প সময়ের মধ্যেই আপনার জীবনকে ধ্বংস করে দিতে পারে।

. সাফল্য উদযাপন এবং তা উদারভাবে অন্যদের সাথে শেয়ার করুন

প্রত্যেক সময় আপনি আপনার সাফল্য উদযাপন করুন। এবং অন্যদের সাথেও এটির আনন্দ ভাগ করে নিন, ভবিষ্যতে সাফল্যের জন্য আপনি বীজ বপন করছেন। সাফল্য, এটি একটি বাগানের মতো – এটিতে উজ্জ্বলতা এবং অস্থিরতার ঋতু রয়েছে এবং এর যত্ন নেওয়া এবং রক্ষণাবেক্ষণ করা আপনার একান্ত কর্তব্য। বাগানে সঠিক পরিচর্যার ফলেই প্রচুর ফুল ও ফল পাওয়া  যায়। কিন্তু সেই বাগানের ফুল ফল না ভোগ করলে সকল শ্রমই বৃথা। ঠিক তেমনি যে কোনও কাজে সফল হলে তা আনন্দের সাথে উদযাপন করা উচিত, নয়ত সফলতার আনন্দ বোঝা যাবেনা। আর সামনের কোনও কাজে আবারও সফল হবার জন্যে সবাইকে নিয়ে সফলতার আনন্দ ভাগাভাগি করা উচিত।

 

[https://www.success.com/dont-skip-these-5-steps-on-your-way-to-the-top/]